Connect with us
Your site title

Uncategorized

ভুলে ভরা মধ্যশিক্ষা পর্ষদের এডমিট কার্ড!

Published

on

পরীক্ষার আর হাতে গোনা মাত্র কয়েকদিন। এর মধ্যে এডমিট কার্ডে হলো ভুতুড়ে কান্ড মাধ্যমিক পরীক্ষাত্রিদের। ঘটনা বিলোনিয়া বিদ্যাপীঠ দ্বাদশ শ্রেণী বিদ্যালয়ে। এই বিদ্যালয়ের অধিকাংশ মাধ্যমিক পড়ুয়াদের এডমিট কার্ডে ভুল। তারিখের জায়গায় মাস এবং মাসের জায়গায় তারিখ উঠে রয়েছে। এই নিয়ে তো হুলুস্থুল কান্ড। এগুলো কি হচ্ছে। একের পর এক ভুতুড়ে কান্ড শুরু হয়েছে রাজ্য শিক্ষা দপ্তরে । কোথাও জন্ম তারিখ ভুল, আবার কোথাও নামের ভুল রয়েছে । মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা সহ অভিভাবকেরা ভুলে ভরা এডমিট কার্ড পেয়ে তো তাদের চক্ষু চড়কগাছ

 

ভুলে ভরা অ্যাডমিট কার্ড । আগামী পনের ডিসেম্বর ত্রিপুরা বোর্ডের মাধ্যমিক পরীক্ষা। গতকাল ত্রিপুরা বোর্ড থেকে নিয়ে আসা মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের এডমিড কার্ড বুধবার দুপুরে পরীক্ষার্থীদের মধ্যে তুলে দেওয়া হয় । বিলোনিয়া বিদ্যাপিঠ স্কুলে মোট ১১৭ জন মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী রয়েছে । এর মধ্যে চল্লিশ শতাংশ পরীক্ষার্থীদের এডমিড কার্ডে ভুল রয়েছে জন্মের তারিখ । এই ভুলে ভরা এডমিড কার্ড হাতে পাওয়ার পরেই পরীক্ষার্থীরা এক প্রকার আৎকে উঠে ।পাশাপাশি পরিক্ষার্থীদের অভিভাবকেরাও খবর পেয়ে ছুটে যায় স্কুলে । বিলোনিয়া বিদ্যাপীঠ স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে জানানোর পর , প্রধান শিক্ষক মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সাথে কথা বলেন ।

মধ্যশিক্ষা পর্ষদ থেকে আশ্বস্ত করা হয় আগামী কয়েক দিনের মধ্যে অ্যাডমিট  কার্ডের ভুলভ্রান্তি শুদ্ধ করে পুনরায় এডমিড কার্ড পাঠানো হবে। ।তবে প্রশ্ন হলো, শিক্ষা দপ্তরের একের পর এক এধরনের খামখেয়ালি পনার ফলে অস্বস্তিতে ছাত্রছাত্রী সহ অভিভাবক মহল। ছাত্র ছাত্রীরা কিভাবে তাদের পরীক্ষার উপর মনোনিবেশ করবে। মধ্য শিক্ষা পর্ষদের ভূমিকা ঘিরে ও উঠছে এখন অবিরাম প্রশ্ন। এক সঙ্গে একই স্কুলের এতগুলো এডমিট কার্ড ভুল হলো কিভাবে। শুধরে নিতে তো হবেই। না হলে ছাত্র ছাত্রীরা পরীক্ষা দেবে কিভাবে। তবে পরীক্ষার প্রাক মুহূর্তে এমন ভুল, তা কিন্তু মধ্যশিক্ষা পর্ষদের ভূমিকাকে প্রশ্ন চিন্যের মুখে ফেলে দিল, তা কিন্তু বলাই শ্রেয়।

Advertisement

Copyright © 2017 news vanguard | develope by : Gorilla Tech solution